তরুন উদ্যোক্তা মাসউদের "জামান ইলেকট্রনিক্স”




লিখেছেন:জি,এম-আদল

ব্যবসা করতে চাই উদ্যোম আর সাহস।এমনি এক উদ্যোমি তরুনের নাম আব্দুল্লাহ আল মাসউদ।বন্ধু মহলে যিনি হাজরা মাসউদ বিন জামান নামেই পরিচিত। মাসুদ এখন বি.এস.এস  তৃতীয় বর্ষের ছাত্র।
মাসউদ এর জন্ম তার
নানা বাড়ী পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া উপজেলার রাধানগর গ্রামে।বাবা মারা গেছে  ২০০০ সালে তাই নানাবাড়ীতেই বড় হওয়া।
মাফছার উল উলুম আলিম মাদরাসা থেকে ২০১২ সালে দাখিল এবং আমানউল্লাহ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে ২০১৪ সালে এইচ এস সি শেষ করে।
২০১৫ সালে দেশসেরা ইলেকট্রনিক্স কোম্পানী ওয়ালটনে কাজ করার সুযোগ পায় মাসউদ।
২০১৭ সালে নিজে ছোট একটা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান শুরু করে।সেখান থেকে শুরু করে এখন তিনি একটি ওয়ালটন শোরুমের মালিক।শোরুমটি মূলত নাজিরপুর উপজেলার বাবুরহাট বাজারে"জামান ইলেকট্রনিক্স”নামে পরিচিত ।
ছোট বেলা থেকেই ব্যবসায় ঝোক ছিল এই তরুন উদ্যোক্তার।ব্যবসার প্রতি ঝোক কিভাবে জানতে চাইলে মাসউদ জানান,"ছোট বেলা খেলতে গিয়েও আমি দোকানদারের ভুমিকা পালন করতাম।আর আমাদের দেশের কোম্পানীগুলোর খবর  তো জানেন,পরিশ্রম করাবে ১২ ঘন্টা আর বেতন দিবে ৬ ঘন্টার।তাই চিন্তা করলাম এই পরিশ্রম আমার নিজের প্রতিস্ঠানে দিলে আরো বেশি ভালো করা সম্ভব এবং বলা যায় আমি মোটামুটি সফল।”
ব্যবসার শুরুর গল্পটা জানতে চাইলে মাসুদ বলেন,"আমি প্রথম ২০১৪ তে ব্যবসার জন্য মায়ের কাছে টাকা চেয়েছিলাম
কিন্ত টাকা উড়িয়ে দিতে পারি বলে রিস্ক নেয়নি।
কারন ওই টাকাটা ছিল আমাদের শেষ সম্বল।
তারপর রাগ করে মাকে বলেছিলাম নিজে টাকা কামাই করে ব্যবসা করবো।তবে শেষবারে অনেক বাধা সত্ত্বেও মা টাকা ম্যানেজ করে দেয় এবং চাকুরী ছেড়ে ব্যবসাটা অনেক বড় চ্যালেঞ্জ ছিল আমার জন্য।"
মাসউদ মনে করেন,সততা এবং পরিশ্রম থাকলে
এবং লক্ষ্য ঠিক থাকলে অবশ্যই জীবনে ভালো কিছু করা সম্ভব,সেটা যে কোন কাজ হোক।
কাজকে উপভোগ করতে হবে,  কাজকে কাজ মনে করলে কখনো আগানো যাবে না।

কাজের মধ্যে অনন্দ খুজে পেলে সফলতা দ্রুত ধরা দেবে।
তার মতে, ব্যবসা স্বাধীন পেশা।সুতরাং মানুষ হিসেবে ব্যবসাটা সব থেকে ভালো কাজ।পিরোজপুর জেলার বাবুরহাট বাজারের এই তরুণ উদ্যোক্তা স্বপ্ন দেখেন,একদিন তিনি  একটা গ্রুপ অফ কোম্পানী প্রতিষ্ঠা করবেন,দেশের এবং জেলার বেকাদেরকে চাকরির ব্যবস্থা করবেন।

1/Post a Comment/Comments

Post a Comment

Previous Post Next Post