মঠবাড়ীয়া উপজেলা নামকরণের ইতিহাস।




মঠবাড়িয়ার প্রাচীন ইতিহাস মূঘল আমলে থেকেই গ্রোথিত । সুবেদার মুর্শিদ কুলি খাঁ আগা বাকের খাঁ কে পাঠিয়েছিলেন কির্তন খোলা নদীর তীর ঘেষে চন্দ্রদ্বীপের এলাকায় যা আগাঁ বাকের তাঁর নামানুসারে বাকের গঞ্জে নাম করন করা হয় । এই বাকের গঞ্জের মৌজায় আরো নিচূ এলাকায় মঠবাড়িয়ার হিন্দু অধ্যুষিত মঠ সমারোহে এর নামকরণ করা হয় মঠবাড়িয়া ।
মঠবাড়িয়া থানা প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯০৪ সালে।মঠবাড়িয়া উপজেলায় বর্তমানে ১টি পৌরসভা ও ১১টি ইউনিয়ন রয়েছে।এগুলো হচ্ছে -মঠবাড়িয়া পৌরসভা,আমড়াগাছিয়া,টিকিকাটা,তুষখালী,দাউদখালী,ধানীসাফা,বড় মাছুয়া,বেতমোর রাজপাড়া,মঠবাড়িয়া,মিরুখালী,শাপলেজা এবং হলতা গুলিশাখালী ইউনিয়ন।
কৃতি সন্তানদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন শহীদ নূর হোসেন (১৯৬১ - ১০ নভেম্বর ১৯৮৭) - রাজনৈতিক কর্মী।

মহিউদ্দিন আহমেদ (১৯২৫-১৯৯৭) - রাজনীতিবিদ;
খান সাহেব হাতেম আলী জমাদার (১৮৭২-১৯৮২) - বঙ্গীয় প্রাদেশিক আইন সভার সদস্য;
মেজর (অবঃ) মেহেদী আলী ইমাম (মৃত্যুঃ ১৯৯৬) - স্বাধীনতাযুদ্ধের বীর সেনানী, বীরবিক্রম;
করপোরাল আব্দুস সামাদ (মৃত্যু ২০১৮) - আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার ৮ নং আসামী;
গনপতি হালদার- ১৯৭১ সালের শহীদ।
কালে ভাদ্রে আরো অনেক কবি,সাহিত্যিক,রাজনীতিবিদ সাংবাদিক,বৈজ্ঞানিক,অর্থনীতিবিদ,শিক্ষক, ইঞ্জিনিয়ার,খেলোয়ার,নাট্যকার,শিল্পপতি, দেশে-বিদেশে অনেক সুনামের সাথে জীবন জীবিকা নির্বাহ করছেন ।

0/Post a Comment/Comments

Previous Post Next Post